স্বর্ণের হিসাব কিভাবে করা হয়? খাটি স্বর্ণ যেভাবে চিনবেন এবং স্বর্ণ বা সোনার হিসাব নিকাশ সহজেই শিখেনিন

স্বর্ণের নেকলেস ডিজাইন
সোনার নেকলেস 

আমরা সবাই কম বেশি স্বর্ণ ক্রয় করে থাকি। কিন্তু অনেকেই জানিনা স্বর্ণ বা সোনা কিভাবে পরিমাপ করতে হয় এবং কত টাকা দাম হয়েছে। স্বর্ণকার যত টাকা বলে আমরা তত টাকা দিয়ে দেই বা সামান্য কিছু কম দিয়ে মনে করি অনেক কম দামে স্বর্ণটা কিনে নিয়েছি। আসলে আপনি কম দামে সোনা কিনতে পারেন নি। কারণ স্বর্ণের দাম যত হয়েছে স্বর্ণকার তার থেকেও বেশি দাম বলেছে, যাতে আপনি কম দিলেও তার লাভের পরিমান ঠিক থাকে।

যদি আপনি স্বর্ণের পরিমাপ বুঝতেন তাহলে আপনাকে স্বর্ণকার বোকা বানাতে পারত না এবং বেশি টাকা নিতে পারতো না। চলুন আর কোন কথা না বাড়িয়ে স্বর্ণের খুটিনাটি জেনে নেয়া যাক।

সবার আগে আপনাকে জানতে হবে আপনি কত ক্যারেটের সোনা কিনবেন এবং কত ক্যারেট সোনার মধ্যে কতটুকু খাদ থাকে এবং কতটুকু পিউর সোনা থাকে। মনে রাখতে হবে অলংকার বানাতে সোনার মধ্যে আবশ্যই খাদ থাকতে হবে। নাহয় অলংকার ভেঙ্গে যাবে। ১০০% পিউর স্বর্ণ দিয়ে অলংকার বানানো যায় না। এবার জেনে নেয়া যাক কত ক্যারেটে কতটুকু সোনা থাকে।

২৪ ক্যারেট = ৯৯.৯৯% সোনা রয়েছে এবং বাকিটুকু খাদ।
২২ ক্যারেট = ৯১.৬০% সোনা রয়েছে এবং বাকিটুকু খাদ।
২১ ক্যারেট = ৮৭.৫০% সোনা রয়েছে এবং বাকিটুকু খাদ।
১৮ ক্যারেট = ৭৫.০০% সোনা রয়েছে এবং বাকিটুকু খাদ।
১৪ ক্যারেট = ৫৮.৫% সোনা রয়েছে এবং বাকিটুকু খাদ।
১০ ক্যারেট = ৪১.৭% সোনা রয়েছে এবং বাকিটুকু খাদ।

এটি আন্তর্জাতিক ভাবে স্বীকৃতিপ্রাপ্ত পরিমাপ। স্বর্ণের অলংকার কেনার আগে অলংকারের গায়ে খোদায় করা লেখাটি দেখে নিবেন এটি আসলেই কত ক্যারেটের। যদি লেখা থাকে ৯৯৯৯ তাহলে এটি ২৪ ক্যারেট, ৯১৬ লেখা থাকলে ২২ ক্যারেট, ৮৭৫ লেখা থাকলে ২১ ক্যারেট। এই লেখাটি খোদায় করে চেনের হুকে বা অলংকারের পেছনে লেখা থাকবে। 

সোনা সাধারণত দুই ভাবে পরিমাপ করা হয়।

১। গ্রাম হিসাবে
২। আনা ও রতি হিসাবে।


গ্রাম হিসাব পদ্ধতি

গ্রাম দিয়ে হিসাব করলে আপনাকে ঠকানো সম্ভব নয়।
তাই স্বর্ণকারকে গ্রাম দিয়ে হিসাব করতে বলবেন।

গ্রাম দিয়ে স্বার্ণের পরিমাপ বের করার সূত্র

১১.৬৬৪ গ্রাম = এক ভরি। অর্থাৎ (স্বর্ণের ওজন ÷ ১১.৬৬৪ = ভরি)

যেমন অলংকারটির ওজন ৮.৯৭৩ গ্রাম। তাহলে ভরিতে কনভার্ট করলে হবে 

৮.৯৭৩ ÷ ১১.৬৬৪ = ০.৭৬৯ ভরি।

যদি প্রতি ভরির দাম ৭০ হাজার টাকা করে হয় তাহলে দাম হবে 

৭০,০০০ × ০.৭৬৯ = ৫৩,৮৩০ টাকা।

আনা ও রতি হিসাব

১৬ আনা = ১ ভরি

৯৬ রতি = ১ ভরি

৯৬০ পয়েন্ট = ১ ভরি

১ আনা = ৬ রতি

১ রতি = ১০ পয়েন্ট

সূত্র: (আনা ÷ ১৬) + (রতি ÷ ৯৬) + (পয়েন্ট ÷ ৯৬০)

মনে করুন আপনি ১০ আনা, ৬ রতি, ৭ পয়েন্ট স্বর্ণ ক্রয় করেছেন। তাহলে হিসাবটি হবে।

= (১০ ÷ ১৬) + (৬ ÷ ৯৬) + ( ৭ ÷ ৯৬০)

= ০.৬২৫ + ০.০৬২৫ + ০.০০৭২৯

= ০.৬৯৪৭৯ ভরি।

যদি প্রতি ভরির দাম ৭০ হাজার টাকা করে হয় তাহলে দাম হবে 

৭০,০০০ × ০.৬৯৪৭৯ =  টাকা।

= ৪৮,৬৩৫ টাকা।

আশা করি বুঝতে পেরেছেন কিভাবে সোনা পরিমাপ করতে হয়। যদি বুঝতে কোন সমস্যা হয় তাহলে কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করতে পারেন। 

আরও পড়ুন: বালি, মাটি, কনক্রিট বা পাথর মাপার সহজ পদ্ধতি, নিজেই বালি ও পাথরের সিএফটি বাহির করুন

Post a Comment

Previous Post Next Post